বি.এস.পি.এ


বাংলাদেশ ভেড়া উৎপাদন সংস্থা

বাংলাদেশে প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কৃষির ওপর নির্ভরশীল। জনসংখ্যার অতিরিক্ত চাপ, ক্রমাগত আবাদি জমি কমে যাওয়াসহ নানা কারণে কৃষির সর্বোচ্চ উৎপাদনশীলতা নিশ্চিত হচ্ছে না। আবার শস্য ও অন্যান্য ফসল ফলাতে আবাদি জমির সিংহভাগই ব্যবহৃত হয়; পর্যাপ্ত চারণভূমি না থাকায় বড় আকারের প্রাণী যেমন গরু, মহিষ পালনও সমস্যাবহুল। এরকম প্রেক্ষাপটে প্রাণিসম্পদ খাতে বিকল্প সুযোগগুলোর ওপর দৃষ্টি দেওয়া অপরিহার্য। ভেড়া পালন এরকম একটি সম্ভাবনাময় বিকল্প। মাংস, উল বা দুধ উৎপাদনের জন্য বিশ্বের প্রায় সর্বত্রই ভেড়া পালন বেশ জনপ্রিয়। ছোট আকারের এই প্রাণীটির অনন্য বৈশিষ্ট্য হচ্ছে যেকোনো ধরনের আবহাওয়ায় এদের উচ্চমাত্রায় খাপ খাওয়ানোর ক্ষমতা। গ্রীষ্মম-লীয় অঞ্চল, নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল, পাহাড়ি অঞ্চল বা শীতল অঞ্চল সবখানে ভেড়া নিজেদের খাপ খাওয়াতে পারে। এদের রোগব্যাধিও কম হয়। ভেড়ার খাদ্য ও পালন ব্যবস্থাপনা তুলনামূলকভাবে সহজ এবং খরচ কম। পারিবারিক পর্যায়ে বিশেষ করে দরিদ্রদের জন্য কম পুঁজিতে ও অল্প পরিচর্যায় ভেড়া পালন আয়ের একটি লাগসই উপায় হতে পারে। পাশাপাশি এটা জাতীয়ভাবে আমিষের যোগানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। বাংলাদেশ সরকার ও ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট (ডিএফআইডি) এর অংশীদারিত্বে পরিচালিত সিঁড়ি/ইইপি কর্মসূচির আওতায় প্র্যাকটিক্যাল এ্যাকশন বর্তমানে বৃহত্তর রংপুরের চারটি জেলায় ‘প্যাথওয়েজ ফ্রম পভার্টি: বিল্ডিং ইকনোমিক এমপাওয়ারমেন্ট অ্যান্ড রেজিলিয়েন্স ফর এক্সট্রিম পুওর হাউজহোল্ডস্ ইন রিভারাইন এরিয়াজ অব বাংলাদেশ (পিএফপি)’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। অন্যান্য কর্মকা-ের পাশাপাশি এ প্রকল্প নির্বাচিত অংশগ্রহণকারীদের ভেড়া পালন বিষয়ে প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন সহায়তা করছে। ভেড়া পালন প্রকল্পে অংশগ্রহণকারী পরিবারগুলোর মধ্যে আশাব্যাঞ্জক গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। প্রকাশনাটি মূলত পিএফপি প্রকল্পের আওতায় ভেড়া পালনকারীদের সহায়ক উপকরণ হিসেবে প্রণীত হয়েছে। এছাড়া এতে ভেড়ার রোগ ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত একটি অংশ সংযোজিত হয়েছে, যেটা থেকে একদিকে যেমন ভেড়া পালনকারীরা রোগ সম্পর্কে ধারণা পাবেন, অন্যদিকে এটা গবাদিপশুর প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদেরও কাজে লাগবে। পুস্তিকাটি সংকলনে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রকাশনা থেকে তথ্য সহায়তা নেওয়া হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের প্রতি রইল আমাদের আন্তরিক কৃতজ্ঞতা। সেই সঙ্গে প্রকাশনার সঙ্গে যুক্ত সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আশা করি পুস্তিকাটি আমাদের দেশের প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন ও দারিদ্র্য কমানোর ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও ভূমিকা রাখবে।

সংস্থা প্রধানের বাণী

‚জনসংখ্যার অতিরিক্ত চাপ, ক্রমাগত আবাদি জমি কমে যাওয়াসহ নানা কারণে কৃষির সর্বোচ্চ উৎপাদনশীলতা নিশ্চিত হচ্ছে না। আবার শস্য ও

Read More »

সর্বশেষ নোটিশ

বাংলাদেশ ভেড়া উৎপাদন সংস্থার ওয়েব সাইটের সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে।
******

সর্বশেষ তথ্যের জন্য আমাদের সাথে থাকুন।
******